সোনাগাজী চরছান্দিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন- ২০১৯-দৈনিক বাংলার অধিকার

0
73

গাজী মোহাম্মদ হানিফ, সোনাগাজী (ফেনী) প্রতিনিধি, দৈনিক বাংলার অধিকার।

সোনাগাজীর ৬নং চরছান্দিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন-২০১৯ ইং, ২৮শে জুলাই রবিবার বিকেলে ভূঞার বাজার হাজী তোফায়েল আহমেদ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি সেলিম জাহাঙ্গীরের সভাপতিত্ব ও সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহিম মানিকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন – ফেনী জেলা আওয়ামিলীগের সাবেক সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজ আহমেদ চৌধুরী, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন – ফেনী জেলা আওয়ামিলীগের দপ্তর সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শহীদ খোন্দকার, সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামিলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক মফিজুল হক, সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র এডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন, জেলা আওয়ামিলীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুল হক লিটন।

অনুষ্ঠানে সার্বিক সহযোগিতা ও দিকনির্দেশনা করেন- চরছান্দিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোশারফ হোসেন মিলন।

সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন – উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শাখাওয়াতুল হক বিটু, এডভোকেট নাছির উদ্দিন বাহার, উপজেলা আওয়ামিলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামিলীগ সহসভাপতি আবদুল মজিদ ভুলুমিয়া, আমিরাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান জহিরুল আলম জহির, চরদরবেশ ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ভুট্টু, উপজেলা আওয়ামিলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও হাজী সেকান্তর মিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি সলিমুল্লাহ সেলিম, জেলা পরিষদের সদস্য নাছির উদ্দিন আরিফ ভূঞা, পৌর আওয়ামিলীগ সভাপতি ইমাম উদ্দিন সেলিম পাটোয়ারী,

পৌর কাউন্সিলর শেখ কলিম উল্যাহ রয়েল, নুরনবী লিটন, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান রেজাউল করিম ফিলিপ, সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি বাহার উদ্দিন ভূঞা ও সাধারণ সম্পাদক এবি ছিদ্দিক দুলাল, সহ আওয়ামিলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন, জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে সম্মেলনের সূচনা করেন- নেতৃবৃন্দ। ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে মিছিল ও শোভাযাত্রা সহকারে সহস্রাধিক নেতাকর্মী সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন।

সম্মেলনে কারাবন্দী আওয়ামিলীগ সভাপতি রুহুল আমিনের মুক্তি দাবী করে দৃষ্টিনন্দন ছবি, ব্যানার ও পোস্টারে চেয়ে যায় সম্মেলন স্থল। উপজেলা আওয়ামিলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সলিমুল্লাহ সেলিম তার বক্তব্যে বলেন- ১৮জন সাক্ষী সাক্ষ্য দিয়েছেন, এই পর্যন্ত একজন সাক্ষীও তাদের জবানবন্দিতে আমাদের প্রিয় নেতা রুহুল আমিন নুসরাত হত্যাকাণ্ডে জড়িত রয়েছেন এমন কথা বলেননি, তবুও চক্রান্ত ও যড়যন্ত্র মূলক ভাবে মিথ্যা মামলায় তাকে জড়ানো হয়েছে। আমরা আজকে এই সম্মেলনের মাধ্যমে আমাদের প্রিয় নেতা মোঃ রুহুল আমিনের নিঃশর্ত মুক্তি দাবী করছি।