আজ ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং

মোবাইল ফোনের ক্ষতিকর অ্যাপস চিনার উপায়- দৈনিক বাংলার অধিকার

স্মার্টফোন মানে যে শব্দ আমাদের মাথায় সবার
আসে তা হলো অ্যাপ। তবে শুধুমাত্র স্মার্টফোন নয়, স্মার্ট ওয়াচ, স্মার্ট টিভির মতো ডিভাইসগুলোর জন্যও এখন হাজার হাজার অ্যাপ হাজির হয়েছে। প্রতি কাজের জন্য ব্যবহার হচ্ছে নতুন অ্যাপ।

ভুয়া অ্যাপ স্মার্টফোন ও অন্যান্য ডিভাইসে অকারণে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে রোজগার করে। যদিও এর মধ্যে কয়েকটি অ্যাপ গ্রাহকের সুরক্ষার জন্য ক্ষতিকর। প্লে স্টোরে এখন ভুয়া অ্যাপের ছড়াছড়ি। গুগল প্লে স্টোরে ভুয়া অ্যাপ চিনবেন কীভাবে? দেখে নিন।

স্টেপ ১। সার্চ রেজাল্টে একই নামে একাধিক অ্যাপ দেখতে পেলে তা ভুয়া অ্যাপ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এই অ্যাপগুলো বানান ও বিবরণে তফাৎ ছাড়া অন্য কোনো পার্থক্য থাকে না। একই সারিতে একাধিক অ্যাপ থাকলে ডাউনলোড করার আগে সতর্ক হোন।

স্টেপ ২। ডাউনলোডের আগে প্লে স্টোরের বিবরণ পেজে ’এডিটরস চয়েস’, ‘টপ ডেভেলপার’ এর মতো ট্যাগ থাকলে ভুয়া অ্যাপ হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে। ডেভেলপারের ওয়েবসাইটে লগ ইন করে নিশ্চিত হতে পারেন।

স্টেপ ৩। হোয়াটসঅ্যাপ, পাবজি মোবাইলের মতো জনপ্রিয় অ্যাপ ডাউনলোডের আগে মোট কত ডাউনলোড হয়েছে দেখুন। যদি দেখেন ৫,০০০ অথবা তার কম ডাউনলোড হয়েছে তাহলে ভুয়া অ্যাপ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

স্টেপ ৪। এছাড়াও স্ক্রিনশট থেকে ভুয়া অ্যাপ চেনা যায়। ভুয়া অ্যাপের স্ক্রিনশটে অদ্ভুত ছবি দেখতে পাবেন। এছাড়াও রিভিউ দেখে ভুয়া অ্যাপ চেনা সম্ভব।

স্টেপ ৫। পাবলিশ ডেট দেখেও ভুয়া অ্যাপ চেনা যায়। সাধারণত ভুয়া অ্যাপগুলোতে সাম্প্রতিক পাবলিশ ডেট থাকে।

স্টেপ ৬। ভুয়া অ্যাপ স্মার্টফোনের অপ্রয়োজনীয় পারমিশন চাইবে। প্রায় সব ভুয়া অ্যাপের ফোনের সব ধরনের পারমিশন বাধ্যতামূলক হয়। কোনো অ্যাপ অকারণ পারমিশন চাইলে আন-ইন্সক্টল করে ফেলুন।

এম

     এই বিভাগের আরোও সংবাদ

আর্কাইভ