আজ ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং

নবীগঞ্জ উপজেলায় ৬ বছরের শিশু জিসান মিয়াকে নগ্ন করে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাত করে সৎ বাবা

সুশীল চন্দ্র দাস হবিগঞ্জ প্রতিনিধি// হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় ৬ বছরের শিশু জিসান মিয়াকে নগ্ন করে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করেছে সৎ বাবাসহ আত্মীয় স্বজনরা। এ ঘটনায় বুধবার (৬ নভেম্বর) ভোরে শিশুর সৎ বাবা স্বপন মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে নির্যাতনের শিকার শিশুর মা সুমনা বেগম বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার চরগাঁও গ্রামের সুফি মিয়ার সঙ্গে বিয়ে হয় সুমনা বেগমের। এরপর তাদের সংসারে জন্ম নেয় এক ছেলে ও এক মেয়ে। এর কিছুদিন পরই সুফি মিয়া মারা যান। তার মৃত্যুর পর সন্তানের কথা চিন্তা করে সফি মিয়ার ভাই স্বপন মিয়ার সঙ্গে বিয়েতে রাজি হন সুমনা বেগম। বিয়ের পর জীবিকার তাগিদে সুমনা গৃহকর্মীর কাজ নিয়ে পাড়ি জমান সৌদি আরবে। তবে সেখানে গিয়ে শান্তিতে থাকতে পারেননি তিনি। টাকার জন্য তার একমাত্র সন্তান জিসান মিয়াকে নির্যাতন করতে থাকে দ্বিতীয় স্বামী স্বপন মিয়া। আর সেই নির্যাতনের দৃশ্য ভিডিও করে সুমনা বেগমের কাছে পাঠান দ্বিতীয় স্বামী স্বপন মিয়া। তা দেখে মা সুমনা বেগম শিশু জিসানকে নির্যাতনকারীদের কাছ থেকে উদ্ধার করতে ধাপে ধাপে স্বপনের কাছে টাকা পাঠাতেন। সেই টাকা উত্তোলন করে নিয়ে নিত স্বপন। বিষয়টি এলাকাবাসীর নজরে এলে স্থানীয় মুরুব্বিদের সহযোগিতায় শিশু জিসান ও তার বোনকে মামার মাধ্যমে নানা বাড়ি পাঠানো হয়। শিশুটির স্বজনরা জানায়, বাবা হারা দুই শিশুকে দাদা-দাদি এবং চাচার কাছে রেখে জীবিকার তাগিদে গৃহকর্মী হিসেবে সৌদি আরব গিয়েছিলেন সুমনা বেগম। সেখানে যাওয়ার দুই মাস যেতে না যেতেই সুমনা বেগমের সন্তানদের ওপর শুরু হয় নির্যাতন। টাকা দেওয়ার জন্য ৬ বছর বয়সী জিসানকে নগ্ন করে নির্যাতন করে সেই ভিডিও তার মায়ের কাছে পাঠিয়েছিলেন সৎ বাবা স্বপন মিয়া। এ বিষয়ে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুর রহমান জানান, বিষয়টি পুলিশ সুপার তদারকি করছেন। নির্যাতনকারী স্বপন মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় শিশুটির মা সুমনা বেগম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে ।

     এই বিভাগের আরোও সংবাদ

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০