আজ ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং

দিনাজপুর শিল্পকলা একাডেমি’র চতুর্দশ জাতীয় শিশু কিশোর নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব ২০১৯ – এ অংশগ্রহণ

মোঃ মিজানুর রহমান (ডোফুরা), দিনাজপুর ।। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি ও পিপল্‌স থিয়েটার এসোসিয়েশন এর আয়োজনে বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ ” চতুর্দশ জাতীয় শিশু-কিশোর নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব ২০১৯ ” ২০ থেকে ২৮ সেপ্টেম্বর, ১৯ বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। উক্ত নাট্যোৎসবে সারা দেশ থেকে ৯৪টি শিশু নাট্য দল, ১০০০০ শিশুর মিলন মেলা, প্রতিদিন ৮৫টি পরিবেশনা এবং ৬৪টি জেলা শিল্পকলা একাডেমির ৪০ সদস্য বিশিষ্ট শিশু সাংস্কৃতিক দল অংশ গ্রহণ করে। ২৩ সেপ্টেম্বর, ১৯ সোমবার বিকেল ৪টা থেকে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা প্লাজা ও মিলনায়তন, জাতীয় নাট্যশালা,এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হল, স্টুডিও থিয়েটার হল এবং জাতীয় সংগীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তনে দিনাজপুর শিল্পকলা একাডেমি’র কালচারাল অফিসার মীন আরা পারভীন এর নেতৃত্বে ” চতুর্দশ জাতীয় শিশু কিশোর নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব ২০১৯ ” এ শিশু সাংস্কৃতিক দল অংশগ্রহণ করে। অনুষ্ঠানে নাটক, একক সংগীত, সমবেত সংগীত, সমবেত নৃত্য, একক অভিনয়, আবৃত্তি, ছবি আঁকা ৭ই মার্চের ভাষণের অংশ বিশেষ পরিবেশন, বিশেষভাবে সক্ষম শিশু শিল্পীর অংশগ্রহণে ছিল দিনাজপুর শিল্পকলা একাডেমির পরিবেশনা। বঙ্গবন্ধু’র শতবর্ষপূর্তিতে পুষ্প কাননে দিনাজপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমির ৫টি শিশু একটি করে চারা গাছ লাগায়। দিনাজপুর আমাদের থিয়েটারের নাট্যকার তারিকুজ্জামান তারেক এর রচনায় ও নির্দেশনায় পরিবেশিত হয় নাটক ” চোখ “। অভিনয়ে – আব্দুল্লাহ মিফতা ও শাহীন আলম এবং আবহ সংগীতে দেবশ্বর সিংহ ও আলো পরিকল্পনায় মোঃ মোস্তাকিম ইসলাম। সমবেত সংগীত পরিবেশন করে – তাজরিয়া সিদ্দিকী সিনথিয়া, সূচনা রায় পূজা, পাপড়ি রায় ‌হিশিতা, সানজিদা জামান শ্রাবণী, ক্যারিশমা রায় ক্ষমা ও মেঘা ঘোষ। একক সংগীত পরিবেশন করে – মেঘা ঘোষ, বর্ণমালা ইসলাম ও মোঃ আবু তাহের মিয়া। সমবেত নৃত্য পরিবেশন করে – নাহিয়ান তাসনিম নিধি, ডরিস রাকা বিশ্বাস রিম্পি, তাস‌নুভা তামারা, মেধাতিথি রায় ইমু, আইরিন রিনা পিংকি ও আফরিন আক্তার স্বর্ণ। একক অভিনয়ে – দীপিকা রানী সিং ও সিদরাতুল মুনতাহা এঞ্জেল। আবৃত্তি শিল্পী – আফসানা নওরিন। বিশেষভাবে সক্ষম শিশু শিল্পী – মোঃ আবু তাহের মিয়া। চারুশিল্পী – দেবজ্যোতি বর্মণ কথা। ৭ই মার্চের ভাষণে অংশগ্রহণকারী – মোঃ তাওকীর আবরার তমঘ্ন। ” চতুর্দশ জাতীয় শিশু-কিশোর নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব ২০১৯ অংশগ্রহণ উপলক্ষে সম্মাননায় পুরস্কৃত হয় – দিনাজপুর জেলা হতে ৩টি নাট্যদল (দিনাজপুর বোচাগঞ্জ সোনালী নাট্যগোষ্ঠী’র সানজিদা সরকার নকশি, দিনাজপুর পার্বতীপুর প্রগতি সংঘের আরাফাত রহমান (মাহিন) ও দিনাজপুর আমাদের থিয়েটারের কানিজ ফাতেমা শ্রাবন্তী)। সংগীতশিল্পী হিসেবে ১জন দিনাজপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমির সংগীত শিল্পী সানজিদা জামান শ্রাবণী ও নৃত্যশিল্পী হিসেবে ১জন – দিনাজপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমির নৃত্য শিল্পী মেধাতিথি রায় ইমু এবং বিশেষভাবে সক্ষম শিশু শিল্পী মোঃ আবু তাহের মিয়া। অনুষ্ঠানে দিনাজপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমির প্রত্যেকটি পরিবেশনা দর্শক নন্দিত ও দারুণভাবে প্রশংসিত হয়। এটা দিনাজপুরের সংস্কৃতির জন্য একটা অর্জন। ১৬ বছরের নিচে শিশুরা যেভাবে সাংস্কৃতিক পরিবেশনায় যুক্ত হলো – সেটি আগামী দিনে দিনাজপুরের সংস্কৃতিতে একটা উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্বাক্ষর হয়ে থাকবে।

     এই বিভাগের আরোও সংবাদ

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০