চাঁদপুর আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় গোলাগুলি -দৈনিক বাংলার অধিকার

0
291

রকি চন্দ্র সাহা, চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধি,দৈনিক বাংলার অধিকার,

চাঁদপুর আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় গোলাগুলি । এ ঘটনায় উভয় পক্ষের কমপক্ষে ৩০জন আহত হয়েছে। এর মধ্যে ১০জন পুলিশের গুলিতে আহত হয়েছে বলে জানান, ফরিদগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সোহাগ। জানা যায়, আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আজ মঙ্গলবার (২৯ জানুয়ারি) ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় স্থানীয় বিআরডিবি কার্যালয়ের সম্মুখে অনুষ্ঠিত হচ্ছিল। উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি যুদ্ধাহত বীরমুক্তিযুদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারীর সভাপতিত্বে সভাটি চলছিল। সভা পরিচলনা করছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আবু ছায়েদ সরকার। বর্ধিতসভায় সকাল থেকে উপজেলা নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থীরা তাদের কর্মী-সমর্থকদের মিছিল নিয়ে বর্ধিত সভায় আসে। বর্ধিতসভার শেষ পর্যায়ে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জাহিদুর রহমান বক্তব্য দিচ্ছিল। এ সময় বর্তমান সংসদ সদস্য শফিকুর রহমানের সমর্থকরা একটি মিছিল নিয়ে বর্ধিতসভায় ঢুকে সবাইকে এলোপাতাড়ি মারতে থাকে। একপর্যয়ে বর্ধিতসভা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। এ সময় সাবেক সংসদ সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আলহাজ্ব ড. মোহাম্মদ শামসুল হক ভূইয়ার গাড়ী সহ বেশ কয়েকটি গাড়ী ভাংচুর করে বর্তমান সংসদ সদস্যের সমর্থকবৃন্দ। উভয়পক্ষকে নিবৃত করতে পুলিশ প্রথমে টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে। এতেও উভয়গ্রুপ ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ভাংচুর না থামালে পুলিশ রাবার বুলেট বর্ষণ করে। এ সময় পুলিশের রাবার বুলেটের আঘাতে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সোহাগ, জেলা পরিষদের সদস্য সাইফুল ইসলাম রিপন, ছাত্রলীগ নেতা রিপন, এ্যাড. মাহবুবুল আলম, শরিফসহ কয়েকজন গুলিবিদ্ধ হয়। গুলিবিদ্ধ আহতদের ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ফরিদগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতির দাবী পুলিশ কারো ইন্ধনে বর্ধিতসভায় গুলি চালিয়েছে। এ ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বর্তমান সংসদ সদস্য বীরমুক্তিযুদ্ধা ও জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সাংবাদিক শফিকুর রহমানের সমর্থক জানান, বর্ধিত সভায় চাঁদপুর-৪ (ফরিদগঞ্জ) আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য বীরমুক্তিযুদ্ধা সাংবাদিক শফিকুর রহমানকে দাওয়াত না দেয়ায় তার সমর্থকরা বর্ধিতসভায় বাঁধা প্রদান করলে, সাবেক সংসদ সদস্য ড. শামসুল হক ভূইয়ার কর্মীসমর্থকগন তাদের উপর হামলা করে। এ ব্যাপারে চাঁদপুর-৪ (ফরিদগঞ্জ) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী কমিটির সদস্য আলহাজ্ব ড. মোহাম্মদ শামসুল হক ভূইয়া জানান, যে ঘটনাটি ঘটেছে তা আওয়ামীলীগের জন্য লজ্জাজনক । গুলিবর্ষণের বিষয়ে চাঁদপুরের পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির জানান, ফরিদগঞ্জে আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা চলছিল। সেখানে বর্তমান সংসদ সদস্যের লোকজন বাঁধা প্রদান করলে উভয়পক্ষ মারামারিতে লিপ্ত হয়। জনগনের জান ও মাল রক্ষার্থে পুলিশ ফাঁকা গুলি ছুঁড়তে বাধ্য হয়।